কবি: আব্রেসাম সোহান

অভিধেয় অহর্নিশ,
কালো জমাটের খুনে লোমশ বুকে শুকিয়ে যাওয়া আঁচড়,
দগদগে শ্যাওলাতে ছেয়েছে।
প্রচিত ক্রোমিয়ামের বলয়হীন উপসনা প্লাবিত গ্রহের মতই-
ধীরগত উচ্ছিষ্ট,
অনাকাঙ্ক্ষিত তো বটেই।
সন্ধ্যের প্রদীপে আসবো না ফিরে।
প্যানারোমার ভীড়ে হঠাৎ হয়তো আবার দেখা হবে,
হয়তো রংধনুর তুলি সাগরের ঢেউ এর মতো আক্রোশে ফেটে পড়বে,
হয়তো মরুভূমির ক্যাকটাসের মত জানিয়ে যাবো আজ অযাচিৎ তুমি,
হবেই না কেন?
যে ব্যাকডেটেট নাগরিকের কোলাহল শুধুমাত্র উপহাস,
সে আর যাই হোক জড় বস্তু ছাড়া কিছু হতে পারে না।
ভূলে যেতে পারো শরৎ এর অলিতে গলিতে স্কেচের টুকরো,
রোদ প্রচ্ছেদের অবশিষ্ট।
সত্যি বলতে প্রেম করতে পারবার চেয়েও বিয়ে করবার সিদ্ধান্ত কিছু কঠিন বৈকী অসম্ভব।
ছন্নছাড়াদের নিয়ে প্রনয় করা চলবে, বিয়ে করা চলবে না।
কিন্তু কীভাবে কীভাবে তোমরা বাপু তারপরও ভালোবেসে যাও।
মহীয়সী ভালোবাসাই বটে।
বেশ তো ছেড়ে দিলাম,
ছেড়ে দিলাম সবই।
সাজাও তবে মনের মত কুড়ে,
আগুন দিতে আসবো না,
আসবো না প্রত্যাখানের শূন্যতা পূর্ণ করতে,
অধিকারের দাবিতে।
শরীরের কোন অংশে পচন ধরলে তা কেটে বাদ দিতে হয়,
তুমি পচে গেছো, আমিও তাই দিলাম।
ছুড়ে ফেলে দিলাম শরীর থেকে সব তুমিগুলোকে।
তুমি পারবে তো?

2 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here